Breaking News
Home / লাইফস্টাইল / বাচ্চাদের সামনে ৭টি কাজ ভুলেও করা যাবে না

বাচ্চাদের সামনে ৭টি কাজ ভুলেও করা যাবে না

শিশুদের সবচেয়ে বড় শিক্ষক হচ্ছে মা বাবা। সবচেয়ে বড় শেখার জায়গাই হচ্ছে তার পরিবার। পরিবারে মা-বাবা যা করেন, সন্তানরাও তাই শেখে। বড়দের আচরণের ছাপ ছোটদের মধ্যে পড়ে। তবে এমন কিছু কাজ কিংবা আচরণ আছে, যা শিশুদের সামনে মোটেও করা যাব’ে না। আসুন জেনে নিই সে সম্পর্কে—

ফোন ও টিভির ব্যবহার কম করা : শিশুরা যদি সবসময় মা-বাবাকে টিভি বা ফোনে ব্যস্ত থাকতে দেখে, তা হলে সেও তাদের মতোই একইভাবে সময় কা’টানো শিখবে। তাই শিশুদের সময় দিতে হবে বেশি এবং তাদের সামনে টিভি ও ফোনের পেছনে সময় যতটা সম্ভব কম ব্যয় করতে হবে।

কারও স’ঙ্গে খারাপ ব্যবহার নয় : মা-বাবা তাদের পরিবারের অন্য কোনো সদস্য, প্রতিবেশী বা বন্ধুর স’ঙ্গে খারাপ ব্যবহার করে থাকলে, শিশুদের ওপর সেটির বাজে প্রভাব পড়বে। কারও স’ঙ্গে মতের অমিল হলে বা কাউকে অ’পছন্দ করলেও শিশুদের সামনে তাদের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করা যাব’ে না। সেটি করলে শিশুরাও সেই ব্যক্তিকে কোনো সময় অ’পমান করতে পারে বা খারাপ ব্যবহার করতে পারে।

খাবার নষ্ট নয় : জীবনে খাবারের গু’রুত্ব কতটা তা শিশুদের বোঝাতে হবে, তাদের কাছে খাওয়ার গু’রুত্ব ব্যাখ্যা করতে হবে। তাই তাদের সামনে কখনও খাবার অ’পচয় করা যাব’ে না। তাদের এটা বোঝাতে হবে যে খাবার নষ্ট করা খুব খারাপ অভ্যাস।

ভদ্রতা বজায় রাখা : শিশুরা আশপাশে থাকলে স্বামী-স্ত্রীর ভদ্রতা বজায় রাখতে হবে। তাদের সামনে এমন কোনো কাজ করা যাব’ে না, যা তাদের ওপর খারাপ প্রভাব ফেলতে পারে। সবসময় শৃঙ্খলা বজায় রাখতে এবং ভালো আচরণ করতে হবে।

চিৎকার না করা : রেগে গেলে বা খুব বির’ক্তের সময় আমর’া চিৎকার চেচামেচি করি। যেটির প্রভাব শিশুদের ওপর পড়ে। এমন পরিস্থিতি আসলে মেজাজ নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে। আর যদি শিশুদের সামনে এমনটি করা হয়, তা হলে তাদের মনে হবে যে এমনটি করা ঠিক কাজ।

বাজে মন্তব্য না করা : কোনো ব্যক্তি সম্পর্কে শিশুদের সামনে বাজে মন্তব্য করা যাব’ে না। কারও গায়ের রঙ, রূপ, শরীর বা খারাপ গু’ণাবলি নিয়ে মন্তব্য করা যাব’ে না। এটি করলে তারাও এই অভ্যাস পেয়ে বসবে।

About admin

Check Also

১ লক্ষ টাকা জমা করলেই নগদ দিচ্ছে ৫ লক্ষ টাকা- সোনালী ব্যাংক!

এবার অভিনব একটি স্কিম নিয়ে এসেছে সোনালী ব্যাংক। এই স্কিমে টাকা জমা রাখলেও পাওয়া যাবে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.