নারিকেল তেলেই দূর হবে চোখের নিচের কালি

চোখের নিচের কালি থেকে মুক্তি পেতে কতজন কত কী বিউটি প্রোডাক্ট ব্যবহার করে থাকেন! তবে সেসবে ফল মেলে না বললেই চলে। এক্ষেত্রে সাহায্য নিতে পারেন নারিকেল তেলের। নারিকেল তেল ত্বকের গভীরে প্রবেশ করে এবং ত্বককে সতেজ রাখে। অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি বৈশিষ্ট্যের কারণে নারিকেল তেল ত্বকের যেকোনো সমস্যা দূর করে। চোখের নিচের কালি দূর করতে নারিকেল তেল ব্যবহারের উপায় প্রকাশ করেছে বোল্ডস্কাই।

ম্যাসাজ
চোখের নিচের অংশে নারিকেল তেল দিয়ে ম্যাসাজ করলে চোখের নিচের কালি দূর হয়, পাশাপাশি এটি চোখের নিচের ফোলাভাবও কমায়। সেজন্য প্রথমে ভালো করে মুখ ধুয়ে শুকিয়ে নিন। এরপর আঙুলে করে অল্প নারিকেল তেল নিন। রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে প্রায় পাঁচ মিনিট ধরে বৃত্তাকার গতিতে চোখের নিচে নারকেল তেল আলতোভাবে ম্যাসাজ করুন। সকালে ধুয়ে ফেলুন। প্রতিদিন এভাবে ব্যবহার করলে উপকার মিলবে।

নারিকেল তেল ও আমন্ড অয়েল
নারিকেল তেল এবং আমন্ড অয়েল ত্বককে কোমল ও সতেজ রাখে। পাশাপাশি দূর করে চোখের নিচের কালি। ১ চা চামচ নারিকেল তেল ও ১ চা চামচ আমন্ড অয়েল একটি বাটিতে একসাথে মেশান। রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে চোখের নিচে এটি মিশ্রণ লাগান। সকালে ধুয়ে ফেলুন। ভালো ফল পেতে এটি সপ্তাহে একবার ব্যবহার করুন।

নারিকেল তেল ও হলুদ
ত্বক কোমল ও উজ্জ্বল রাখতে হলুদ অপ্রতিদ্বন্দ্বী। এদিকে নারিকেল তেল ত্বককে ময়েশ্চারাইজ রাখে। এই দুইয়ের মিশ্রণ চোখের নিচের কালি দূর করতে সাহায্য করে। ১ টেবিল চামচ নারিকেল তেল এক চিমটি হলুদ একটি পাত্রে একসাথে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি চোখের নিচে লাগান। ১৫ মিনিট রেখে দিন। সুতির নরম কাপড় দিয়ে মুছে নিন। এরপর পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি সপ্তাহে একবার করুন।

নারিকেল তেল এবং ল্যাভেন্ডার অয়েল
ল্যাভেন্ডার অয়েলে অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি এবং অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা ত্বকের বিভিন্ন সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে। উপকরণ ১ টেবিল চামচ নারিকেল তেল ও কয়েক ফোঁটা ল্যাভেন্ডার অয়েল ভালোভাবে মিশ্রিত করুন। এরপর চোখের নিচে বৃত্তাকার গতিতে কয়েক মিনিট আলতোভাবে ম্যাসাজ করুন। ২-৩ ঘন্টা রেখে তারপরে ধুয়ে ফেলুন। এটি প্রতিদিন করুন।

নারিকেল তেল, আলু এবং শসা
১ চা চামচ নারিকেল তেল, ১টি আলু ও ১টি শসা নিন। আলু এবং শসা খোসা ছাড়িয়ে ছোট ছোট টুকরো করুন। একসঙ্গে ব্লেন্ড করে নিন। এই পেস্টটি চোখের নিচে দিয়ে আলতোভাবে কয়েক মিনিট বৃত্তাকার গতিতে ম্যাসাজ করুন। ১৫-২০ মিনিট রেখে দিন। এরপর ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে শুকিয়ে নিন। এবার চোখের নিচে নারিকেল তেল ব্যবহার করুন।সকালে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

এই পদ্ধতিগুলোর যেকোনোটির ব্যবহারেই উপকার পাবেন। তবে প্রতিকারের চেয়েও জরুরি হলো প্রতিরোধ। যেসব কারণে চোখের নিচে কালি পড়তে পারে, সেসব এড়িয়ে চলুন। দ্রুত ঘুমাতে যাওয়া এবং ভোরে ঘুম থেকে ওঠার অভ্যাস করুন। প্রয়োজন ছাড়া দূরে রাখুন গ্যাজেট। স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন পারে আপনাকে সুস্থ ও সুন্দর রাখতে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *