নারীরা তৃপ্তির জন্য পুরুষের কাছে যা আশা করে

নারীরা তৃপ্তির জন্য পুরুষের কাছে যা আশা করে। নারী হোক বা পুরুষ হোক সবাই শারীরিক মিলনে তৃপ্তি(Satisfaction) আশা করেন। সবাই চাইলেও সে পূরণ হয়না সবার।

পুরুষরা সহজেই তৃপ্তি পেলেও, মহিলাদের ক্ষেত্রে এই সন্তুষ্টি সহজ নয়৷ মহিলাদের সন্তুষ্ট করতে পুরুষরা কম কসুর করেন না৷ কিন্তু প্রশ্ন হল, তৃপ্তিতে বলতে মহিলারা ঠিক কী বোঝেন?নারীরা তৃপ্তির জন্য

পুরুষদের ধারণার সঙ্গে মেয়েদের ভাবনার ফারাক কোথায়, তা জানতেই সম্প্রতি এক সমীক্ষা হয়েছিল৷ সেখানেই জানা গেল তৃপ্তিতে মহিলারা ঠিক কী চান৷ প্রায় ৬০০ জন মহিলার উপর সমীক্ষা চালানো হয়েছিল৷ তাঁদের কাছে প্রশ্ন রাখা হয়েছিল, তাঁরা তৃপ্তির জন্য পুরুষের কাছে ঠিক কী প্রত্যাশা(Expectation) করেন৷

উত্তর যা পাওয়া গেল, তা জানা পুরুষদের জন্য অত্যন্ত জরুরি৷ কেননা এই উত্তরগুলির মধ্যেই নারীদের সুখী করার চাবিকাঠি লুকিয়ে রয়েছে৷ যেমন এক মহিলা জানিয়েছেন, তাঁর সঙ্গী নিজের সন্তুষ্টির পরেও সঙ্গম থামান না৷ বরং তিনি কতক্ষণে সন্তুষ্ট হবেন তার জন্য মিলন প্রক্রিয়া চালিয়ে যান৷ এক মহিলা জবাব দিচ্ছেন, শারীরিক তৃপ্তির(physical satisfaction) জন্য ভালবাসা আবশ্যিক নয়৷

তবে একে অন্যের শারীরিক চাহিদাকে সম্মান জানাতে হবে, এবং পরস্পরের চাহিদা(Demand) অনুযায়ী সক্রিয় হতে হবে৷ তবে ভালবাসা থাকলে এই তৃপ্তি আরও অনেক গুণ বেড়ে যায়৷ মিলন তৃপ্তিতে মানসিক সম্পর্কের জায়গা যে গুরুত্বপূর্ণ তা অনেকের কথায় উঠে এসেছে৷ এক মহিলা জানিয়েছেন, সঙ্গমে তিনি শারীরিকভাবে শিহরিত হতে থাকেন ঠিকই, তবে পাশাপাশি মানসিক পরিতৃপ্তি(Mental satisfaction) প্রয়োজন৷ আর তা আসে সঙ্গীর সঙ্গে মানসিক সংযোগের ভিত্তিতেই৷

আরেক মহিলা জানিয়েছেন, শরীরি সম্পর্কের ক্ষেত্রে সঙ্গীর সঙ্গে যেন একটা ফিল গুড ব্যাপার থাকে৷ ঘনিষ্ট হওযার মুহূর্তে যদি দুজনের মধ্যেই একই রকম প্যাশন থাকে, তবে সহজেই তৃপ্তিতে মেলে জানাচ্ছেন আরেক মহিলা৷৷ অর্থাৎ মিলন তৃপ্তি বলতে মহিলারা শুধু শারীরিক চাহিদাপূরণের কথা ভাবেন না৷ তার সঙ্গে মানসিক পরিতৃপ্তিতেও জোর দিচ্ছেন প্রায় প্রত্যেকেই৷ পুরুষরা মাথায় রাখলেই সহজেই সঙ্গিনীকে যৌনসুখ(Sexual pleasure) দিতে পারবেন৷

সুস্থ থাকুন, নিজেকে এবং পরিবারকে ভালোবাসুন। আমাদের লেখা আপনার কেমন লাগছে ও আপনার যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তবে নিচে কমেন্ট করে জানান। আপনার বন্ধুদের কাছে পোস্টটি পৌঁছে দিতে দয়া করে শেয়ার করুন। পুরো পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *