এবার বিয়ে করতে হিন্দু হলেন দুই মুসলিম মেয়ে, নিরাপত্তায় পুলিশ

এতদিন মুসলিম যুবকদের বিয়ে করতে হিন্দু মেয়েরা ধর্ম পরিবর্তন করছিলেন। এজন্য কঠোর হচ্ছে ভারত।

‘লাভ জেহাদ ‘নিয়ে শোরগোলের মধ্যে উত্তরপ্রদেশের বেরিলি জেলায় ঘটেছে ব্যতিক্রম ঘটনা। এবার দুই মুসলিম মেয়ে ধর্ম পরিবর্তন করে হিন্দু ধর্ম গ্রহণ করেছেন। অন্য ধর্মের ছেলেকে বিয়েও করেছেন। ভিনধর্মী ছেলেকে বিয়ে করা দুই মুসলিম মেয়ের নিরাপত্তা দিতে চাচ্ছে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ।

বেরিলির পুলিশ সুপার রোহিত সিংহ সাজভান ভারতীয় গণমাধ্যমকে বলেছেন, সরকারি নথির ভিত্তিতে দুই নারী নিজেদের প্রাপ্তবয়স্ক বলে দাবি করে স্বেচ্ছায় অন্য ধর্মের যুবকদের বিয়ে করেছেন। এর সঙ্গে কোনও সম্পর্কই নেই লাভ জেহাদের। তারা চাইলে নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হবে। ধর্ম বদলে হিন্দু হয়ে বিয়ে করা মেয়ে দুটি বেরিলির রিথাউরা ও বহেদি এলাকার।

রিথাউরার মেয়েটির ভাই অবশ্য পুলিশে অভিযোগ করেছেন। তিনি বলেন, পাড়ার একটি ছেলের প্রলোভনে পা দিয়ে তার বোন গত ২২ ডিসেম্বর তার সঙ্গে পালিয়ে যায়, ঘর থেকে ৯৮ হাজার রুপি চুরি করে। তবে পুলিশের দাবি, মেয়েটি পুলিশকে ভিডিও মেসেজ করে বয়সের নথিপত্র দেখিয়েছেন।

তিনি জানিয়েছেন, নিজের ইচ্ছাতেই সে হিন্দু ধর্ম গ্রহণ করে মন্দিরে ছেলেটিকে বিয়ে করেছে। পুলিশ পরে মেয়েটি সহ তার স্বামী ও মেয়েটির অভিভাবকদের ডেকে পাঠায়। দুপক্ষের লিখিতভাবে জানায়, পরস্পরের বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ নেই তাদের। সব মিটে গিয়েছে, অভিযোগও তুলে নেয়া হয়।

বহেদির মেয়েটির ক্ষেত্রেও থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয় যে, দুজন লোক জোর করে তার ধর্ম বদলিয়ে ভিন সম্প্রদায়ের একটি ছেলের সঙ্গে তার বিয়ে দিয়েছে।

মেয়েটির বাবা পুলিশকে জানান, সে ঘর থেকে ৫ লাখ রুপি ও সাত তোলা সোনা সঙ্গে নিয়ে পালিয়েছে। এমবিএ পাশ করা মেয়েটিও ভিডিও পাঠিয়ে নিজের ইচ্ছায়ই ধর্ম বদলে বিয়ে করেছে বলে জানায়। পুলিশ জানায়, নিরাপত্তা চাইলে তাদের জন্য নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *