হি’ন্দুরা কিভাবে শিব ল‘ঙ্গ পূ’জা করে তা দেখুন II মেয়েরা কিভাবে মে’য়েদের শিব লি’ঙ্গ পু’জা করায়।

সব চাহিদা কি আর পূর্ণ হয়? তবু মেয়েরা ঈশ্বরের কাছে স্বামী চাইলেই সব সময়ে শিব ঠাকুরের মতোই চান। বাংলার গ্রাম, শহরে অবিবাহিত মেয়েদেরই তাই বেশি বেশি করে শিব ঠাকুরের ভক্ত ‘হতে দেখা যায়। সব মেয়েরই স্বপ্নে থাকে আদর্শ স্বামী। শুধু মেয়েরাই নয়, তাদের অ’ভিভাবকরাও চায়,

যেন মনের মতো জামাই পায় মেয়ে। মনের মতো মানেটা ঠিক কী? কী কী গু’ণ থাকতে হবে সেই হবু জামাইয়ের? মায়েদের কাছে প্রশ্ন করা হলে তাঁরা বলবেন, সে যেন মেয়েকে ভালবাসে। মেয়ের খেয়াল রাখে। মেয়ের যত্ন নেয়, সম্মান করে। তার অনুভূ’তিকে যথাযত মূল্য দেয়। আর যে চাহিদার কথা কোনো মা মুখ ফুটে বলবেন না, সেটা হলো, শিবের মতো জামাই যেন মেয়ের কথা শুনে চলে।

এত সব চাহিদা কি আর পূর্ণ হয়? তবু মেয়েরা ঈশ্বরের কাছে স্বামী চাইলেই সব সময়ে শিব ঠাকুরের মতোই চান। বাংলার গ্রাম, শহরে অবিবাহিত মেয়েদেরই তাই বেশি বেশি করে শিব ঠাকুরের ভক্ত ‘হতে দেখা যায়। শিবরাত্রির উপবাস, শিবলি’ঙ্গে জল ঢালা, রাত জাগায় অংশ নিতে দেখা যায়। একটাই প্রার্থনা, হে মহাদেব, যেন তোমা’র মতোই স্বামী পাই।

এই শিবের মতো স্বামী ঠিক কেমন?
১. মহাদেব শিব শান্ত স্বভাবের। আবার তিনি রেগে গেলে প্রলয় ঘটাতে পারেন। মেয়েরাও এমনই বর পছন্দ করেন। শান্ত হবে আবার সঠিক জায়গায় প্রতিবাদ করবে।
২. শিব শান্ত হলেও সাহসী। আর তাই সাহসী পুরুষের প্রতীকই হলেন শিব। মনে রাখবেন, ভীতু ছেলেদের একেবারেই পছন্দ করে না মেয়েরা।

৩. স্ত্রীর প্রতি ভালোবাসা কাকে বলে, তা দেখিয়েছেন মহাদেব। পুরাণের বিভিন্ন কাহিনীতেই তার পরিচয় পাওয়া যায়। এটা যে সব মেয়েরই স্বপ্ন, স্বামীর ভালোবাসা।
শেষে একটা বি’ষয় মনে রাখা দরকার। শ্মশানবাসী শিবের স’ঙ্গে গাঁ’জা-সি’দ্ধি-নন্দি-ভৃ’ঙ্গীরও যোগ রয়েছে। তা বলে এগু’লিও শিবের মতো বরের কাছে মেয়েরা আশা করে এমনটা ভাবা মোটেও ঠিক নয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *