দুই দিনেই বগলের কালো দাগ দূর করবে নারকেল তেল

বগলের বিচ্ছিরি কালো দাগ নিয়ে অনেকেই চিন্তিত থাকেন। পুরুষের পাশাপাশি নারীদেরও এই সমস্যায় ভুগতে হয়। এর ফলে নারীরা চাইলেও সিলভলেস পোশাক পরিধান করতে পারে না। এই দাগ খুবই বিরক্তিকর হয়।

তবে এর থেকে মুক্তি পেতে কোনো প্রসাধনী নয়, ঘরোয়া কিছু উপাদান সঠিকভাবে ব্যবহার করাই যথেষ্ট। যা আপনাকে এই বিচ্ছিরি সমস্যা থেকে মাত্র দুই দিনেই মুক্তি দেবে। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক ঘরোয়া পদ্ধতিতে কীভাবে দূর করবেন বগলের কালো দাগ-

বেকিং সোডা
বগলের কালো দাগ দূর করতে অনেক ভালো কাজ করে বেকিং সোডা। এতে রয়েছে এন্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান। যা বগলের কালো দাগ দূর করে। বেকিং সোডার সঙ্গে সামান্য পানি মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। তারপর এই পেস্ট বগলে লাগিয়ে ১০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এভাবে সপ্তাহে ২ থেকে ৩ দিন ব্যবহার করুন, কালো দাগ দূর হয়ে যাবে।

নারকেল তেল
বেকিং সোডার মত একইভাবে নারকেল তেল ব্যবহার করতে পারেন। নারকেল তেলের সঙ্গে বেকিং সোডা মিশিয়ে বগলে মাখতে পারেন। এতে দাগ দূর হওয়ার পাশাপাশি গন্ধ থেকেও মুক্তি মিলবে।
ত্বকে ব্রণের সমস্যায় অনেকে জর্জরিত। শুধু যে মুখেই ব্রণ হয়ে তা নয়। শরীরের যেকোনো জায়গায় হতে পারে ব্রণ। বিশেষ করে অনেকেই পিঠে ব্রণের সমস্যায় ভোগেন। আর ব্রণ হলে দাগ হওয়ার সম্ভাবনাও প্রবল।

বেশ কয়েকটি কারণে পিঠে ব্রণের সমস্যা দেখা দিতে পারে। যারা জিম করেন, তারা জিম থেকে এসে কাপড় না বদলালে এবং ঠিকমতো গোসল না করলে পিঠে ব্রণ হতে পারে। এছাড়া নিয়মিত পিঠে স্ক্রাবিং না করলেও হতে পারে ব্রণ। পিঠে স্ক্রাবিং ঝামেলা বলে অনেকেই তা এড়িয়ে যান। শরীরের সঙ্গে লেগে থাকা পোশাকের কারণেও ব্রণ হতে পারে।

ঘরোয়া কয়েকটি পদ্ধতি অবলম্বন করলেই এই সমস্যা থেকে মুক্তি মিলতে পারে। চলুন এম কয়েকটি পদ্ধতি জেনে নিই-

# কাঁচা হলুদ বেটে ভাল করে সারা পিঠে লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। হলুদের অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল দ্রুত ব্রণ সারাতে সাহায্য করে।
# টক দই ভাল করে ফেটিয়ে পিঠে লাগান। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। টক দইয়ে প্রচুর পরিমাণে প্রোবায়োটিক থাকে যা স্বাস্থ্যের পক্ষে ভাল।

# অ্যালোভেরা জেল পিঠের ব্রণর মধ্যে লাগিয়ে ২০-৩০ মিনিট রেখে দিন। এর পর ভেজা কাপড় দিয়ে মুছে ফেলুন।
# গ্রিন টি ছেঁকে ঠান্ডা করে, তুলার সাহায্যে ব্রণর মধ্যে লাগালে উপকার পাবেন। কারণ গ্রিন টিতে পলিফেলন থাকায় এটি ব্রণ প্রতিরোধে সাহায্য করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *