জানুন মেয়েদের ঘুমানোর ভঙ্গি বলে দেবে তারা কেমন ছেলে পছন্দ করে

মানুষের মনের তিনটি স্তর। চেতন, অবচেতন ও অচেতন। ঘুমের মধ্যে মানুষ তার অবচেতন স্তরে থাকে। আর তখন তার নিজস্ব ব্যাক্তিত্ব ফুটে ওঠে।

হয়তো ভাবছেন কিভাবে ঘুমের মধ্যে ব্যাক্তিত্ব ফুটে ওঠে? তাহলে বলি আপনি কিভাবে ঘুমোচ্ছেন সেটি বলে দেয় আপনার ব্যাক্তিত্ব কেমন। মানুষ ঘুমানোর সময় নিজের ভাব ভঙ্গি দিয়ে তার ব্যাক্তিত্ব ফুটিয়ে তোলে।

আপনি যখন জেগে থাকা অবস্থায় চলা ফেরা করেন আর কথা বার্তা বলেন সেটা যেমন আপনার আবেগ বা ব্যাক্তিত্ব ফুটিয়ে তোলে তেমনই ঘুমের ভঙ্গিও আপনার ব্যাক্তিত্ব ফুটিয়ে তোলে। সম্প্রতি এরকম একটি তথ্য দিয়েছেন সাউথ অস্ট্রেলিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ডক্টর মা’র্ক কোহলার। তিনি বলেছেন –

১। কোন ব্যাক্তি যদি মায়ের পেটে থাকার সময় যেরকম অবস্থায় থাকে সেরকম অবস্থায় যদি ঘুমায় তাহলে বুঝতে হবে সে দুশ্চিন্তাগ্রস্থ। ২। যে মানুষ এক পাস ফিরে ঘুমায় সে অনেক হিসাবি ও সঠিক জীবনযাত্রার অধিকারী।

৩। যারা বুক উঁচু করে রাজকী’য় ভঙ্গিমায় ঘুমায় তারা আত্মনির্ভরশীল হয়ে থাকে। এরকম ঘুম খুব দৃঢ় ব্যাক্তিত্বের মানুষে হয়ে থাকে। এদের ঘুম খুব পাতলা হয়, খুব সহ’জে যেমন এরা ঘুমিয়ে পড়েন আবার অল্প আওয়াজেই ঘুম থেকে উঠে পড়েন। এরা হাত পা শরীরের বরাবর সোজা করে রেখে ঘুমায়।

৪। যেসব মানুষ পেট নীচের দিকে দিয়ে কাত হয়ে ঘুমায় তারা খুব হতাশ হয়ে থাকে। এদের আত্মবিশ্বা’স খুব কম হয়। এরা উপুড় হয়ে শুতেও পছন্দ করে। এ ধরনের মানুষেরা নিজের জীবনের ওপর অল্পই নিয়ন্ত্রণ রাখতে পারে।

আবার নিউস ডট কমের ঘুম বিষয়ক এক গবেষণা প্রতিবেদনে স্বামী স্ত্রী’দের ঘুমানোর অবস্থান নিয়ে গবেষকরা বিশেষ বর্ণনা দিয়েছেন। স্বামী স্ত্রী’র ঘুমানোর ভঙ্গি থেকেও বোঝা যায় তাদের আসলে কেমন স’ম্পর্ক। সেগু’লি হল –

১। চামচের মত ঘুমঃ এরকম ভঙ্গিমায় ঘুমালে স্বামী স্ত্রী’কে একসঙ্গে দেখে চামচের মত মনে হয়। এটা স্বামী স্ত্রী’র প্রাকৃতিক ঘুমের নিয়ম। ২। পায়ে পা দিয়ে ঘুমঃ এই ভাবে ঘুমালে বোঝা যায় তাদের মধ্যে খুব মধুর স’ম্পর্ক।

৩। কোমড় জরিয়ে ঘুমঃ স্বামী স্ত্রী’ একে অ’পরের কোমড় ধরে ঘুমোলে তাদের ঘুমের ভঙ্গি বলে দেয় তারা সবসময় একে অ’পরের কাছাকাছি আছে। এজাতীয় ঘুম বলে দেয় তাদের মধ্যে স’ম্পর্ক কত ভালো আর দুজনে দুজনের সংস্প’র্শ কতটা উপভোগ করে।

৪। দূরত্ব বজায় রেখে ঘুমঃ অনেক ক্ষেত্রে স্বামী স্ত্রী’ ঘুমানোর সময় বেশ খানিকটা দূরত্ব বজায় রেখে ঘুমায়। এক্ষেত্রে বোঝা যায় তাদের স’ম্পর্কের মধ্যে অনেক দূরত্ব তৈরী হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *