শরীরের ৮ স্থানে তিল থাকা মানেই ধনী হওয়ার লক্ষণ!

পৃথিবীতে ধনী হতে সবাই চায়। সচ্ছলতা ও বিলাসিতার জীবন কাটাতে মানুষ অক্লান্ত পরিশ্রমও করে। তবে কেউ কেউ সফল হন, আর অনেকেই রয়ে যায় ব্য’র্থ। তবে মানুষের ভবিষ্যৎ কতটা ভালো হবে তা নির্ভর করে তার ক’র্মের উপর। আর বাকিটা হলো ভাগ্য। যা আগে থেকেই নির্ধারণ করা থাকে। তবে ভাগ্য বদলের ক্ষেত্রেও ক’ঠোর পরিশ্রমের কোনো বিকল্প নেই।

সমুদ্রশাস্ত্র মতে, ভাগ্য বা ভবিষ্যৎ গড়ে তোলার মতো কিছু বিষয় মানুষ জ’ন্মগত ভাবে নিজে’র মধ্যে পেয়ে থাকে। যার একটি মাধ্যম হলো তিল। শ’রীরে বিভিন্ন জায়গায় তিলের অব’স্থান আপনার ভবিষ্যৎ স’স্পর্কে শুভ-অশুভ অনেক কিছুই ই’ঙ্গিত দিয়ে থাকে।

তিলতত্ত্বের মতে, শ’রীরের বিভিন্ন স্থানের তিল বলে দিতে পারে ভবিষ্যতে কী আছে আপনার ভাগ্যে। কিংবা শ’রীরের কোথায় তিল থাকলে কী হয় তা তিল দেখে আগাম জা’না যায়। শুধু তার সঠিক অর্থ বুঝে নিতে হবে। শ’রীরে কিছু কিছু জায়গা আছে যেখানে তিল থাকা মানেই ধনী হওয়ার লক্ষণ। চলুন তবে জে’নে নেয়া যাক কোথায় কোথায় তিল থাকলে সম্পত্তি লাভ বা অর্থলাভের পথ সুগম হয়-

> ঠোঁটের ঠিক ওপরেই তিল! হ্যাঁ, এমন স্থানে তিল থাকলে বুঝতে হবে খুব অল্প বয়স থেকেই সেই নারী বা পুরুষ প্রচুর ধন-সম্পদের অধিকারী হয়ে উঠবেন। এই স্থানে থাকা তিলের ব্য’ক্তিরা একটু জেদি স্বভাবের হইয়ে থাকেন।

> নাকের ডানদিকে তিল থাকা মানুষটির ধনী হয়ে ওঠার সম্ভাবনা প্রবল। ৩০ বছর বয়স থেকেই এরা সাফল্যের সিঁড়ি চড়তে থাকেন।
> সমুদ্রশাস্ত্র বিশেষজ্ঞদের মতে, যাদের কোমরে তিল থাকে তাদের ধনী হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল থাকে। দিন দিন তাদের সম্পত্তি সমৃদ্ধি হতে থাকে।

> বিয়ের পর অনেকেই প্রচুর সম্পদের মালিক হন। এক্ষেত্রে যাদের শ’রীরে যে কোনো স্থানে গাঢ় রঙের ও ছোট্ট আ’কারের তিল থাকে, তাহলে বুঝে নিন সেই নারী কিংবা পুরুষ বিয়ের পর ধনী হতে চলেছেন। এমনটাই দা’বি সমুদ্রশাস্ত্র বিশেষজ্ঞদের।

> যদি কারো ডান হাতের চেটোতে তিল থাকে, তাহলে সেই ব্য’ক্তি খুব অল্প বয়স থেকেই সম্পত্তি পেতে থাকেন। ফলে সহজেই তাদের ধনী হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।
> সমুদ্রশাস্ত্র বিশেষজ্ঞদের মতে, নাভির আশেপাশে বা চিবুকে তিল থাকা মানেও ধনী হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল।
> বুকে তিল থাকলে সেই নারী বা পুরুষ সহজে ধনী হন। পাশাপাশি এরা খুবই শান্তিপূর্ণ জীবন যাপন করেন।

> এছাড়া কানের আশেপাশে তিল থাকলেও তার ধনী হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি থাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *