তেলাপোকার উপদ্রপ থেকে চিরতরে মুক্তি দেবে দারুচিনি, জানুন পদ্ধতি

বর্ষাকালে বিভিন্ন পোকামাকড়ের উপদ্রপ বেড়ে যায়। এর মধ্যে তেলাপোকা অন্যতম। তবে প্রায় সারাবছরই তেলাপোকার উপদ্রপ থাকে রান্নাঘরসহ অন্যান্য ঘরেও। যা খুবই বিরক্তিকর।

এছাড়া তেলাপোকা রান্নাঘরে রাখা খাবারেও হাঁটাচলা করে। ফলে তা অস্বাস্থ্যকর ও খাওয়ার অযোগ্য হয়ে যায়। তাই সুস্থতার কথা চিন্তা করেই বাড়ি থেকে তেলাপোকা দূর করা খুব জরুরি। আর এর জন্য রয়েছে কিছু ঘরোয়া সমাধান। যা তেলাপোকার উপদ্রপ থেকে আপনাকে চিরতরে মুক্তি দেবে। চলুন জেনে নেয়া যাক সেই জাদুকরী উপায়গুলো-

> রান্নাঘরে অল্প পরিমাণ নিমপাতা ফেলে রাখুন। তাতেই দেখবেন তেলাপোকা বাড়ি ছেড়ে পালাবে।

> শশা শুধু শরীরের বাড়তি মেদ ঝরাতেই নয়, রান্নাঘর থেকে তেলাপোকা তাড়াতেও অব্যর্থ। গোল গোল কেটে রান্নাঘরের কোণায় কোণায় ফেলে রাখুন শশা। তারপর দেখবেন ওই গন্ধে রান্নাঘর ছেড়ে পালিয়েছে তেলাপোকা।

> বাজার থেকে সদ্য কিনে আনা দারুচিনিও আপনার বাড়িকে তেলাপোকা কবল থেকে মুক্তি দিতে পারে। রান্নাঘরের চতুর্দিকে দারুচিনি ছড়িয়ে দিন, তাতেই দেখবেন কাজ হয়ে গিয়েছে।

স্বপ্নে যদি শা’রীরিক সম্পর্কের ঘটনা ঘটে তাহলে যা করবেন

ঘুমের ঘোরে আমরা অনেক স্বপ্ন দেখি। কোনোটা মনে থাকে, কোনোটা থাকে না। কোনোটা আবার স্বাভাবিক মনে হয়, কোনোটা মনে হয় উদ্ভট। কখনো কখনো স্বপ্নে যে কারো সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কও হয়ে থাকে। অনেক সময় এমন মানুষের সঙ্গে সম্পর্ক হয়, যা কল্পনাও করি না। ফলে ঘুম ভাঙার পর দুশ্চিন্তায় পড়ে যাই। নিজে নিজে বলি, কী সব স্বপ্ন দেখলাম, কেন দেখলাম!

আসলে স্বপ্নে এমন শারীরিক সম্পর্কের মধ্যে অবচেতন মনের অন্য কোনো ভাবনা থাকে। তাই আসুন, স্বপ্নে শারীরিক সম্পর্কের লুকোনো কিছু অর্থ জেনে নেই-

অপছন্দের ব্যক্তি: স্বপ্নে দেখা ব্যক্তির সঙ্গে বাস্তবে যদি মনোমালিন্য থাকে, তাহলে অবচেতন মন আপনাকে সেই সমস্যা মিটিয়ে নেওয়ার ইঙ্গিত দিচ্ছে। তবে বাস্তবে কতটুকু সম্ভব; তা পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করবে। যদি বাস্তবে ওই ব্যক্তির সঙ্গে ঝামেলা মিটিয়ে নেওয়া সম্ভব না হয়, তাহলে বিষয়টি থেকে মন তুলে নেওয়ার চেষ্টা করুন।

প্রাক্তনকে দেখা: প্রাক্তন প্রেমিক-প্রেমিকা এলে এবং তার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় দেখলে তার মানে এই নয় যে, অবচেতনে আপনি তাকে কামনা করছেন। প্রাক্তনকে স্বপ্ন দেখার মানে আপনি পুরোনো প্রেমের উত্তেজনা, আবেগ মিস করছেন। তাই বর্তমান সম্পর্কে সেই আবেগ ফিরিয়ে আনুন। আর নতুন সম্পর্ক না থাকলে এমন কিছু করুন, যাতে মানসিক তৃপ্তি পাবেন।

অপরিচিত ব্যক্তি: অনেকেই অপরিচিত কাউকে স্বপ্ন দেখেন। এর মানে এই নয় যে, বাস্তবে তেমন কেউ আপনার জন্য অপেক্ষায় আছেন। একজন সম্পূর্ণ অপরিচিতের সঙ্গে রাত কাটানোর জন্য যে সাহস, মনোভাব ও আত্মবিশ্বাস দরকার, তা বাস্তব জীবনের প্রতি ক্ষেত্রে আনার ইঙ্গিত দেয় এ স্বপ্ন।

সেলেব্রিটি দেখা: কোনো সেলেব্রিটিকে স্বপ্নে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় দেখা মানে নিজের জীবনেও এমন সফলতা কামনা করছেন। তবে যদি তাকে এমনিতেও খুবই ভালো লাগে এবং দিনের বেশিরভাগ সময় তাকে নিয়ে চিন্তা করে কাটান, তাহলে স্বপ্নে তিনি আসতেই পারেন!

সহকর্মীকে দেখা: সহকর্মীকে স্বপ্নে দেখা মানেই বাস্তবে তার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হতে চাওয়া নয়। তার পদ অনুসারে স্বপ্নের অর্থ কিন্তু পাল্টে যায়। সহকর্মী সিনিয়র বা বস হলে, অবচেতন মনে নিজেকে ওই পদে দেখতে চান। সহকর্মী সম পদের হলে আপনাদের মধ্যে দ্বন্দ্ব বা টানাপড়েন আছে। এছাড়া জুনিয়রকে দেখলে মনে করবেন, ওই জুনিয়রের ওপর আপনি অনেকটা নির্ভরশীল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *