গ’র্ভব’তী কিশোরী: ‘ আমার হবু সন্তানের বাবার বয়’ বয়স ১০!’

রাশি’য়ার মে’য়ে’টির বয়স ১৪। ১৬ অগস্ট সে এক কন্যা সন্তা’নের জন্ম দিয়েছে। বাচ্চা মায়ের নাম দা’রিয়া দুস’নিশিনিকো’ভা। মাত্র ১৩ বছর বয়সে’ই ইনস্টা’গ্রামে সে জানিয়েছিল যে মা হতে চ’লেছে। আর তার বে’বির বা’বার নাম ইভান, যার বয়স ১০। যদিও রি’পো’র্ট’ বলছে ১০ বছ’রের শিশু’টি মোটে’ই বা’বা হতে পারে না।

রি’পোর্ট বল’ছে ১৪ বছরের কি’শো’রীকে সা’ইবে’রিয়ার দি’কে যেতে’ হয়ে’ছিল, কারণ সে ডা’ক্তার খুঁ’জছি’ল যে তার প্রস’বে সাহা’য্য কর’বে। বা য’ত্ন নেবে।১৬ অগস্ট সে ইন’স্টাগ্রা’মে জানায়, মে’য়ের জ’ন্ম দি’য়েছে কিন্তু খুব কঠিন পরী’ক্ষা’র মধ্যে দিয়ে যেতে হয়ে’ছে তাকে। ইন’স্টাগ্রা’মে দা’রি’য়ার ফ’লোয়া’রের সংখ্যা মো’টে সা’ড়ে তিন ল’ক্ষ।

যদিও এখনও সদ্যো’জাতো’র ছবি সে প্র’কাশ্যে আনে’নি। চি’কিৎসক তাকে এখন স’ম্পূর্ণ বি’শ্রামে থা’কতে বলে’ছেন। দারি’য়া লি’খেছে, ‘১৬ আগস্ট আ’মি সকা’ল ১০টায় মেয়ে’র জন্ম দি’য়েছি। এখন খুব টায়ার্ড। পরে ক”থা বলছি’। যদিও এব’ছরের শুরু’তেই সে তার ইনস্টা’গ্রাম পোস্টে লিখেছি’ল, বয়’ফ্রেন্ড ইভা’নই হল তার বা’চ্চার বাবা।

কিন্তু ১০ বছরের এক’টি বাচ্চা বাবা হতে চলেছে এমন উদ্ভট দাবি মেনে নিতে পারেনি কেউই। এরপর দা’রিয়া জানায়, তার বাড়ি’র কাছে’ই ১৬ বছরে’র একটি ছে’লে তাকে ধ’র্ষ’ণ করে’ছি’ল। সেই ছেলে’টি’ই তার স’ন্তা’নের বাবা।

এরপর আ’বারও বলে ই’ভানে’র বাবা তা’কে ধ’র্ষ’ণ ক’রে’ছিল, যার জেরে সে গ’র্ভ’ব’তী হয়ে প’ড়ে। কি’ন্তু সেই কথা কা’উ’কে বল’তে পা’রেনি। পু’রো ঘট’নায় এ’কটি মা’ম’লা দা’য়ের হয়েছে। আ’সল স’ত্যির দা’বিতে তদ’ন্ত শুরু করে’ছে পুলি’শ। ন’বজাত’কের ডিএ’নএ পরী’ক্ষা হবে তাও জানানো হ’য়েছে।

ইভা’নে’র বয়’স এখন ১১। আর তাই যখন তার প্রে’মি’কা ক’ন্যার জন্ম দে’য় সেই সময় চিকিৎসক তাকে উপ’স্থিত থাক’তে দেয়নি। রা’শি’য়ার নিয়ম অনুযায়ী, ১৬ বছর বয়’স হ’লে সে’খান’কার নাগ’রিকে’রা অ’ভিভা’বকত্ব নিতে পারেন।

আর তাই সদ্য’জাতো’র কি’শোরী মা দারি’য়া লি’খেছে, ই’ভান এখন আ’মা’র সঙ্গে থা”’কে না। মাঝে’মধ্যে রা”ত্রে থাকতে আ’সে। তবে ওর ১৬ বছর বয়স হলে পি’তৃ’ত্বের দায় নেবে কিনা আমি জানি না। যদি ত’তদিন পর্যন্ত আমাদের মধ্যে সবকিছু ঠিকঠাক থাকে তা’হলে ও নি’শ্চয় ভে’বে দেখ’বে। স’বই নি’র্ভ”র কর’ছে স’ময়ের উপর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *